জিবন্ত লাশ!!


“কানিস রহমান”

একটি সকালকে স্নিগ্ধতায় ভরে দেয়ার মত
স্নিগ্ধ বাতাস কি আমার আছে!
আমি নিজের জন্য নির্মল বাতাস খোজি
আর নিজেই প্রতি নিয়ত বাতাস দুষিত করি
কি দ্বিচারণ আমার আচরণে মধ্যে!
আমি ভালবাসা চাই বিশুদ্ধ কিন্তু
আমার নিজের ভালবাসা বিশুদ্ধ কিনা
সে হিসেব কি কখনো করেছি!
আমি যখন স্নেহের আশায় ছুটে গেছি
স্নের আশায় নিরাশ হয়ে আমরা
পেয়েছি হাড়িয়ে যাওয়ার দিশা।
তবুও বেচে থাকার আশায় যখন
আমি প্রেয়সীর কাছে ছুটে গেছি ঠিক
তখনই দেখেছি ভালবাসার চাইতে
ধনসম্পদ তার অনেক প্রিয়
আমার আমি ভাগবাটোয়ারার জিনিস
ভাগ করতে করতে কখন আমি
নিজের অস্তিত্ব হারিয়েছি আমি
নিজেই জানতে পারিনি।
যখন নিজের মধ্যে আমি ফিরতে চেয়েছি
তখন দেখি আমি এক অচেনা মানুষ
যাকে আমি নিজেই চিনি না
শুধই প্রশ্ন আমি কে, কি আমি
মানুষ না সম্পদ নাকি
ঠুকরে ঠুকরে খাওয়ার জন্য
একটি জিবন্ত লাশ!!